গল্প নাগরিক সংবাদ

গল্প নাগরিক সংবাদ 

আছ অনুভবে অনুক্ষণ

কিন্তু ভাষার কথা, মুক্তিযুদ্ধের কথা ওর বেশি প্রিয়। ওকে বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন থেকে একাত্তরের স্বাধীনতা যুদ্ধসহ সব সংগ্রামের কথা বলেছি।

আছ অনুভবে অনুক্ষণ

'টাকার পাহারাদার' নুরু মিয়া পেলেন আমেরিকাপ্রবাসীর অর্থ সহায়তা

আমেরিকা প্রবাসীর সহায়তা তুলে দেওয়া হচ্ছে নুরু মিয়ার হাতে

'টাকার পাহারাদার' নুরু মিয়া পেলেন আমেরিকাপ্রবাসীর অর্থ সহায়তা

মুগ্ধতা জড়ানো এক কাপ চা

আমাদের সবারই চিরচেনা নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তীর সেই অমলকান্তি। তার মতো রোদ্দুর হতে চাওয়া এমন বন্ধুকে এক কাপ চা খাওয়াতে পারা আমার জন্য ভারি আত্মতৃপ্তির। এই তো কদিন আগে আমি আমার ওয়ালে লিখেছিলাম, চায়ের মতো ...

মুগ্ধতা জড়ানো এক কাপ চা

একজন আরজ আলী

আরজ আলী। বয়স চৌষট্টি বা পঁয়ষট্টি হবে। ছিলেন সরকারি প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা। বছর সাতেক অবসরে গেছেন। স্ত্রী নাজমা বেগম কিডনি জটিলতায় ভুগে মারা গেছেন তাও প্রায় ১০ বছর হলো। তাঁদের দুই মেয়ে আমেরিকায়।

 একজন আরজ আলী

তিস্তার চরে স্কোয়াশ চাষ

রংপুরের গঙ্গাচড়া লক্ষ্মীটারি ইউনিয়নের কৃষক আলমগীর হোসেন (৫০)। ইডিপি প্রকল্প থেকে সহায়তা নিয়ে তিন বছর ধরে স্কোয়াশ চাষ করছেন তিস্তার চরে। এ বছর তিস্তার চরে ৩৫ শতক জমিতে স্কোয়াশের চাষ করেছেন।

তিস্তার চরে স্কোয়াশ চাষ

ঢাকায় বিপ্লবী সোমেন চন্দ যাত্রাপালার মঞ্চায়ন

উপমহাদেশের ফ্যাসিবাদবিরোধী আন্দোলনের প্রথম শহীদ শোষণহীন সমাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠার অগ্রনায়ক তরুণ লেখক-সংগঠক সোমেন চন্দের সংগ্রামী জীবনভিত্তিক যাত্রাপালা ‘বিপ্লবী সোমেন চন্দ’ প্রথম মঞ্চায়ন হয়ে গেল গতকাল ...

ঢাকায় বিপ্লবী সোমেন চন্দ যাত্রাপালার মঞ্চায়ন

সেদিন কাঁদতে ভুলে গিয়েছিলাম

আবির বিছানা ছেড়ে উঠে জানালায় গিয়ে দাঁড়ায়। জানালা থেকে চাঁদ দেখা যায়। চাঁদের দিকে সে হাত বাড়ায়। আজকের চাঁদটাকে খুব কাছেই মনে হয়। এই তো হাত বাড়ালেই ছুঁতে পারবে। একদম হাতের মুঠোয়। চাঁদকে স্পর্শ করার ...

সেদিন কাঁদতে ভুলে গিয়েছিলাম

ভাওয়াইয়া সম্রাট আব্বাসউদ্দীনের গল্প

আব্বাসউদ্দীন (১৯০১-১৯৫৯) বাংলার লোকগানের এক ধ্রপদি সংগীত ব্যক্তিত্ব। সংগীতাঙ্গনে তথা আধুনিক কাব্যগীতি, দেশাত্মবোধক গান, ইসলামি গান, ভাওয়াইয়া সংগীত ও পল্লিগীতিতে এই শিল্পীর অবদান তুলনারহিত।

ভাওয়াইয়া সম্রাট আব্বাসউদ্দীনের গল্প

অন্য রকম বিচার

পেছন থেকে দুটো লোক সামনে এসে পথ আগলে দাঁড়াল। এর মধ্যে একজন ডবল এক্সএল সাইজের মোটা। আর অপরজনের ফিগার জিরো সাইজের। ভালো করে খেয়াল করে দেখলাম, কিন্তু এই লোক দুটোকে এর আগে কখনো দেখেছি বলে মনে পড়ল না।

অন্য রকম বিচার

দোচালা ঘর

-বাবা বাবা, আমাদের দোচালা ঘরটা কি তাহলে পড়ে যাবে?বাবা চুপচাপ বসে রইলেন। উত্তর যে তাঁর জানা নেই, সেটা বোঝার বাকি রইল না আমার। দীর্ঘশ্বাস ফেলে বাবা নূর নাহারের দিকে তাকালেন। পাশের রুমে থাকা চৌকিতে বসে ...

দোচালা ঘর
আরও