ক্যাম্পিং গ্রাউন্ডে তাবু খাটানো
ছবি: লেখক

কানাডার সাসকাচোয়ান প্রদেশের ছোট্ট একটা কমিউনিটি জেমস স্মিথ ক্রি নেশন, যেখানে সম্প্রতি এক ভয়ংকর ও হৃদয়বিদারক ঘটনা (ছুরিকাঘাত ও হত্যা) শুনে আমি ও আমার পরিবার স্তম্ভিত হয়ে যাই। জেমস স্মিথ ক্রি নেশনে ঘটে যাওয়া এই হৃদয়বিদারক ঘটনা এখন পৃথিবীর অধিকাংশ মানুষের মুখে মুখে! যেটিতে ১০ জনের প্রাণ গেছে এবং আরও অনেকে জীবনের হুমকির মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন! কানাডাতে বসবাসরত আমাদের সবার সেলফোনে সরকারিভাবে প্রশাসন থেকে এ বিষয়ে থেকে এ পর্যন্ত সাতবার জরুরি সতর্কবার্তা এসেছে নিজে সাবধান থাকার জন্য এবং অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনকে সাহায্য করার জন্য। লেখাটি যখন টাইপ করছি তখন দেখলাম, ডেমিয়েন সান্ডার্সন, যিনি কিনা দোষী দুজনের একজন, তাঁকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে জরুরি সতর্কবার্তায় এ খবর ফোনে এল।

ক্যাম্পিং গ্রাউন্ডে পড়ন্ত বিকেল
ছবি: লেখক

লেখাটি আমাদের হৃদয়ের ব্যথা এবং ওই কমিউনিটির সঙ্গে আমাদের সম্পর্কের দায়ভার ও সহমর্মিতা প্রকাশের অভিপ্রায়ে লেখা। আমাদের প্রার্থনা মৃত ব্যক্তিদের আত্মার শান্তি কামনায় এবং সহমর্মিতা তাঁদের পরিবারের জন্য, যাঁরা তাঁদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন। আর তা ছাড়া যাঁরা হাসপাতালের বিছানায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভয়ে ও যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন, তাঁদের প্রতিও গভীর সমবেদনা ও সহমর্মিতা জানাই।

প্রিন্স অ্যালবার্ট গ্র্যান্ড কাউন্সিল (এটি একটি আদিবাসী সংস্থা), সাসকাচোয়ানের মাধ্যমে গত মাসের ৭ থেকে ১১ তারিখ আমার স্বামী পরিচালিত আদিবাসী জলবায়ু এবং মাছের আবাসস্থল পর্যবেক্ষণ প্রকল্পের অংশ হিসেবে জেমস স্মিথ ক্রি নেশন সাংস্কৃতিক গ্রাউন্ড এলাকায় একটি সাংস্কৃতিক বিজ্ঞান শিবিরের আয়োজন করেছিল।

ক্যাম্পিং গ্রাউন্ডে খাবারের আয়োজন
ছবি: লেখক

আমার স্বামীর তত্ত্বাবধানে আমার ছেলেও জেমস স্মিথ ক্রি নেশনের পাঁচ দিনের ক্যাম্পিংয়ে গিয়েছিল। স্বামী ও আমার ছেলেকে এই সৌহার্দ্য ও বন্ধুত্বপূর্ণ ক্যাম্প সেট করার অনুমতি দেওয়ার জন্য অন্তর থেকে ধন্যবাদ জানাই ওই কমিউনিটির চিফ ওয়ালি বার্নস ও জেমস স্মিথ ক্রি নেশন সম্প্রদায়কে। বাবা-ছেলের একসঙ্গে পরিবার ছাড়া বাইরের সম্প্রদায়ের সঙ্গে এটাই প্রথম ক্যাম্পিং করা। ক্যাম্পিংয়ে যাওয়ার জন্য সে এক অদ্ভুত সাজ সাজ রব দুজনের মধ্যে। তারা কানাডিয়ান টায়ার থেকে টেন্ট, স্লিপিং ব্যাগ, এয়ার বেড, বালিশ, কম্বল, শুকনা খাবার কিনল। আর অনুষ্ঠান পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী এবং অংশগ্রহণকারীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের পুরস্কার ও উপহার, সেই সঙ্গে নিজেদের লাগেজসহ আরও কত কিছু নিয়ে গাড়ি একদম ঠেসেঠুসে ভরে রওনা দিয়েছিল। ওখানে নেটওয়ার্কের অসুবিধা হতে পারে, তবু বাপ-বেটা বাসার সঙ্গে যোগাযোগের কোনো ব্যবস্থা করে ফেলবে, এই আশ্বাস দিয়ে গেল।

ক্যাম্পিং গ্রাউন্ডে সমাবেশ
ছবি: লেখক

আমার ছেলে আদিবাসীদের লোকাল খাবারে তেমন একটা অভ্যস্ত ছিল না, তাই তাকে ক্যাম্পিংয়ের দিনগুলোতে বিকেলে কোনো নিকটবর্তী শহর এনে একবার খাওয়ানোর ব্যবস্থা করত আমার স্বামী। আর এরই এক ফাঁকে বাবা-ছেলে আমাদের বাসার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ রাখত। কত ঘটনা, আনন্দ, অভিজ্ঞতা—তারা আমাকে ফোনে বলত আর বাকিটা বাসায় এসে বলবে বলত।

জেমস স্মিথের ঘাস, লতা-গুল্ম, ছোট-বড় গাছে ঘেরা চারদিকের সবুজ-শ্যামল নয়নাভিরাম ক্যাম্পিং গ্রাউন্ড (নিচের ছবিটি দেখুন)। এর দক্ষিণ পাশ দিয়ে এঁকেবেঁকে বয়ে গেছে সাসকাচোয়ান নামের নদীটি। যার উৎপত্তিস্থল রকি পর্বতমালা আর গন্তব্য হাডসন বে/ উপসাগর। যেটা ব্যবহার করে ইংরেজরা এ অঞ্চলে বসতি গেড়ে ছিল! জেমস স্মিথ এমন এক জায়গা, যেখানে সন্ধ্যা নামতে না নামতে বুনো হরিণ, শিয়াল/ কুকুর-জাতীয় প্রাণী (Coyote) ডাকতে থাকে রাতভর। ঘুমানোই দায়!

ক্যাম্পিং গ্রাউন্ডে চলছে সমাবেশ
ছবি: লেখক

এই মনোমুগ্ধকর ক্যাম্পিং অনুষ্ঠানে ইউনিভার্সিটি ও কলেজশিক্ষক, কিছু আদিবাসী প্রবীণ, যুবক, ফার্স্ট নেশন/ নেটিভ গ্রুপের প্রধানসহ বেশ কয়েক সম্প্রদায়ের সদস্য উপস্থিত ছিলেন। আমার স্বামী-সন্তানের সঙ্গে ক্যাম্পের পাঁচ দিনজুড়ে তাঁরা সবাই একসঙ্গে বন্ধুত্বসুলভ হাসিখুশি থেকেছেন এবং সবাই একসঙ্গে খাবার ভাগ করে খেয়েছেন। ক্যাম্পের দিনগুলোতে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আমার স্বামী-সন্তানের সঙ্গে তাঁদের এই সদালাপ ও বন্ধুভাবাপন্ন আচরণ ছিল সত্যিকার অর্থে হৃদয়ভুলানো।

রাতে ক্যাম্প ফায়ার
ছবি: লেখক

অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীরা আমার স্বামী ও ছেলের কাছে জানতে চাইলেন কানাডা কেমন লাগে, কেন কানাডা আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা ইত্যাদি। আবার আমার স্বামী ও ছেলে তাঁদের কাছ থেকে তাঁদের জীবনব্যবস্থা সম্পর্কে অনেক তথ্য জেনেছিল। যেমন তাঁরা কীভাবে তাঁদের খাবার সংগ্রহ ও প্রস্তুত করেন। অন্যান্যের মতো ক্যাম্পে উপস্থিত ব্যক্তিরা দিন শেষে রাতে বনের কাঠ সংগ্রহ করে আগুন জ্বালিয়ে গোল হয়ে বসে গল্প করতেন। তাঁরা ওয়াপিটি ভ্যালি রিজিওনাল পার্ক, সাসকাচোয়ানের মাঠ পরিদর্শনে অংশ নিয়েছিলেন পানি ও মাছের আবাসস্থল পর্যবেক্ষণ-সংক্রান্ত ইভেন্টের জন্য আমন্ত্রিত অন্যান্য আদিবাসী প্রবীণ ও যুবকের সঙ্গে।

মাছের নমুনা সংগ্রহের দৃশ্য
ছবি: লেখক

সামাজিক দায়িত্বের অংশ হিসেবে তাঁরা স্বেচ্ছায় নদীর উপকূল পরিষ্কারের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। জায়গাটি উত্তর ও দক্ষিণ সাসকাচোয়ান নদী যেখানে মিলিত হয়, সেখান থেকে খুব বেশি দূরে নয়, যেটা কিনা উত্তর সাসকাচোয়ান নদীর পাড়ের জমিতে। ক্যাম্পের শেষ দিনে, আমার স্বামী অন্যদের সহায়তায় একটি ভোজের আয়োজন করেছিল, সেখানে প্রায় ৫০ জন সমবেত হয়েছিলেন। ভোজ শেষে সবাই মিলে তাঁরা ঐতিহ্যবাহী ড্রামিংয়ের সঙ্গে ক্রি নাচে (cree dance) অংশগ্রহণ করেছিলেন।

নৃত্যে
ছবি: লেখক

এ প্রাণবন্ত জনপদ এখন বেদনাকাতর এক নিস্তব্ধ পুরী। এটা বিশ্বাস করা কঠিন যে প্রায় ১ হাজার ৬০০ জন–সংবলিত একটি জীবন্ত, বন্ধুত্বপূর্ণ এবং শান্ত, নিভৃত এক ছোট পল্লিতে, যেখানে একে অপরকে চেনেন এবং সবাই মোটামুটি আত্মীয়তার বন্ধনে আবদ্ধ, সেখানটা এ মর্মান্তিক পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছে! আপনারা তাঁদের জন্য ধর্ম-বর্ণনির্বিশেষে দোয়া করবেন।