দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) মো. ফাহাদ পারভেজ বসুনীয়া। এরপর রাষ্ট্রদূত মো. আবদুল হাই বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী প্রদত্ত বাণী পাঠ করেন যথাক্রমে দূতাবাসের (মিনিস্টার) রাজনৈতিক ও মিশন উপপ্রধান মিজ মালেকা পারভীন, মিনিস্টার (কনস্যুলার) আহমেদ তারিক সুমীন, ইকনোমিক মিনিস্টার সৈয়দ রাশেদুল হোসেন এবং কাউন্সেলর ও দূতালয়প্রধান মো. মাসূমুর রহমান। অনুষ্ঠানে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ওপর নির্মিত অ্যানিমেশন ফিল্ম ‘মুজিব আমার পিতা’ প্রদর্শিত হয়।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দূতাবাস কর্তৃক ব্যাংককস্থ ইসলামিক সেন্টারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া মাহফিলের আয়োজন এবং এতিম ও দুস্থদের মধ্যে খাদ্য বিতরণ করা হয়।

এ ছাড়া দূতাবাসের তত্ত্বাবধানে ব্যাংককস্থ ওয়াট প্রোম রাংসি মন্দিরে বাংলাদেশ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের ছাত্র সংস্থার পক্ষ থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের জন্য বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন দূতাবাসের কাউন্সেলর (রাজনৈতিক) মিজ দয়াময়ী চক্রবর্ত্তী। বিজ্ঞপ্তি