অনুষ্ঠানে দেওয়ান সাইফুল আলম মাসুদ বাংলাদেশে অর্থনৈতিক উন্নয়ন সম্পর্কে বিভিন্ন ডেটা তুলে ধরেন এবং বাংলাদেশে বিনিয়োগের বিভিন্ন সম্ভাবনার কথা বলেন। এ ছাড়া চেম্বারের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনাগুলো তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথির ভাষণে হংকংয়ের অর্থমন্ত্রী বাংলাদেশ মেট্রোপলিটন চেম্বারের কার্যক্রমের প্রশংসা করেন। তিনি ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ চেম্বার হংকং ও বাংলাদেশের মধ্যে ব্যবসা এবং সম্পর্ক উন্নয়নে কাজ করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এ ছাড়া হংকং এবং গ্রেটার বে এলাকায় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য আহ্বান জানান।

বিশেষ অতিথির ভাষণে লেজিসলেটিভ কাউন্সিলর ভিনসেন্ট মেট্রোপলিটন চেম্বার হংকংয়ের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবসা উন্নয়নে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করছেন। তিনি বাংলাদেশের দ্রুত উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

বাংলাদেশ কনস্যুলেটের ভাইস কনসাল মো. মারজুক ইসলাম, কনসাল জেনারেল ইশরাত আরার লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান। কনসাল জেনারেল বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের বিভিন্ন সূচক নিয়ে আলোচনা করেন এবং বাংলাদেশে হংকংয়ের ব্যবসায়ীদের বিনিয়োগের জন্য আহ্বান জানান। চেম্বারের জেনারেল সেক্রেটারি আবেদিন রাশিদুল অনুষ্ঠানটি সফলতার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং চেম্বারের ভবিষ্যৎ কার্যক্রম পরিচালনায় সবার সহযোগিতার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন হংকং জেনারেল চেম্বার অব কমার্সের এশিয়া-আফ্রিকা কমিটির চেয়ারম্যান জনাথন ল্যামপোর্ট, হংকংয়ের ফিলিপাইন কনস্যুলেটের ভাইস কনসাল রবার্টো মাবালট, হংকংয়ের ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিলর ডেরেক হুং।