প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্যের লেক আর সবুজ পাহাড় ঘেঁষে প্রাকৃতিক নয়নাভিরাম রাস কাফ্রিয়ায় বাংলাভাষীদের কলকাকলিতে মুখরিত হয়ে ওঠে। আয়োজকদের আন্তরিক আতিথেয়তায় সবাই মুগ্ধ হয়। দীর্ঘদিন পর প্রবাসী বাংলাদেশিরা একে অপরকে কাছে পেয়ে আবেগতাড়িত হয়ে পড়ে, মেতে ওঠে সুখ-দুঃখের আলাপনে, কেউ কেউ ঘুরে ঘুরে পার্কের রূপসুধা উপভোগ করতে থাকে। শিশু-কিশোরদের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস ছিল চোখে পড়ার মতো। বনভোজনে অংশগ্রহণকারী বয়স্করাও বয়সের সীমাবদ্ধতা ভুলে প্রাণের উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠে। সবার স্বতঃস্ফূর্ত ও আন্তরিক সহযোগিতায় স্বদেশীয় আবেগ, অনুভূতি ও উচ্ছ্বাসের মধ্য দিয়ে পুরো রাস কাফ্রিয়া পরিণত হয়েছিল একটুকরো বাংলাদেশে।

বিভিন্ন ধরনের আনন্দ আয়োজন উপভোগ করতে করতে মধ্যাহ্নভোজের সময় হয়ে যায়। দুপুর গড়াতেই পরিবেশিত হয় দুপুরের খাবার। হরেক পদের মুখরোচক খাবার খেয়ে সবাই তৃপ্তির ঢেকুর তুলতে থাকে। বনভোজনে বিভিন্ন ধরনের খেলাধুলায় শিশু-কিশোর ও মহিলারা প্রাণ খুলে অংশগ্রহণ করে। এ ছাড়া র‍্যাফল ড্রতে ছিল আকর্ষণীয় পুরস্কারের সমাহার।

প্রবাসীকল্যাণ সমিতি স্পেনের সভাপতি আল আমীন মিয়া ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাধারণ সম্পাদক এস এম মাসুদুর রহমানের উপস্থাপনায় দুপুরের খাবারের পর শুরু হওয়া খেলাধুলায় অংশগ্রহণকারী বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ। এর মধ্য দিয়ে বনভোজনের কার্যক্রম শেষ হয়।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রবীণ কমিউনিটি নেতা নূর হোসেন পাটোয়ারী। বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান এবং ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাধারণ সম্পাদক এস এম মাসুদুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বনভোজন ও আনন্দ মেলার অনুভূতি তুলে ধরে বক্তব্য দেন প্রবাসীকল্যাণ সমিতি স্পেনের সভাপতি আল আমীন মিয়া, গ্রেটার ঢাকা অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাধারণ সম্পাদক মিল্টন ভূঁইয়া কচি, প্রবীণ কমিউনিটি নেতা আবুল কালাম আজাদ (বেঙ্গল), মোজাম্মেল হক মনু, মো. দুলাল সাফা, ভালিয়েন্তে বাংলার সভাপতি মো. ফজলে এলাহী, বৃহত্তর ফরিদপুর কল্যাণ সমিতি স্পেনের সাবেক সভাপতি হেমায়েত খান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক তুতা কাজী, কমিউনিটি নেতা সাইফুল আলম লিটন, ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের উপদেষ্টা এস এম আহমেদ মনির, নারায়ণগঞ্জ জেলা অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সভাপতি একরামুজ্জামান কিরণ, বিক্রমপুর মুন্সিগঞ্জ সমিতি স্পেনের সভাপতি মাহবুবুর রহমান ঝন্টু, সাধারণ সম্পাদক রাসেল দেওয়ান, কমিউনিটি নেতা আব্দুল কাইয়ুম মাসুক, ব্যবসায়ী আবুল হোসেন, অসীম রিবেরি ক্রীস, আবু জাফর রাসেল প্রমুখ।

যাঁদের নিরলস প্রচেষ্টায় বনভোজনের কার্যক্রম সফল হয়, তাঁরা হলেন ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সিনিয়র সহসভাপতি রুবেল সামাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু বাক্কার, মহিলা সম্পাদক সেবানা রহমান, নরসিংদী ওয়েলফেয়ার সোসাইটি ইন স্পেনের আন্তর্জাতিক সম্পাদক মো. ইয়াছিন সিকদার, ব্যবসায়ী জানে আলম, সাঈদ আনোয়ার, নাফিস মামুন, সাত্তার হোসেন, মো. সেলিম, শামীম রেজা, জহিরুল হক টুটুল, আনিসুল কবির মিশু, হেলাল মিয়া, আলামিন, শাহীন মিয়া, আমির হোসেন, সাইফুল মুন্সী ইকবাল প্রমুখ।

বনভোজনের শেষ পর্ব ছিল পরিচিতি পর্ব ও অনুভূতি প্রকাশ, র‌্যাফল ড্র, পুরস্কার বিতরণী, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে দেশীয় গান পরিবেশন করেন স্পেনে বসবাসরত বাংলাদেশী শিল্পী বিপ্লব খান, মো. জহিরুল ইসলাম, আলামিনসহ প্রবাসীরা।

বনভোজনে স্পেনে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা সপরিবার অংশ নেওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান আয়োজক প্রবাসীকল্যাণ সমিতি স্পেনের সভাপতি আল আমীন মিয়া।

প্রবাসীদের এ মিলনমেলা শুধু মনের খোরাকই জোগায় না, দেয় অনাবিল শান্তি আর শক্ত করে বিদেশের মাটিতে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন। এ ধারা বজায় থাকুক, এমন প্রত্যাশা নিয়েই এবারের বনভোজন ও আনন্দ মেলা সফলভাবে শেষ করেন আয়োজকেরা।


* লেখক: কবির আল মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক, ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেসক্লাব