default-image

এ বছর বড় করে উদ্‌যাপন করা হচ্ছে মুজিব বর্ষ। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি মুজিব বর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ১৭ থেকে ২৬ মার্চ বিশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালার কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে শিল্পকলা একাডেমি থেকে নিবন্ধন নেওয়া যাত্রা দলের মালিক ও এই শিল্পের কুশীলবেরাও নানামুখী আয়োজনের মধ্যে ব্যস্ত সময় পার করছেন। তাঁরা মুজিব বর্ষ উদ্‌যাপন উপলক্ষে ডুমুরিয়ায় যাত্রার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

সেই ধারাবাহিকতায় আজ শনিবার যাত্রাশিল্পের সংগঠন বাংলাদেশ যাত্রাশিল্প উন্নয়ন পরিষদ ডুমুরিয়া উপজেলা কমিটি নোয়াকাটি বাজারে এক সমন্বয় সভার আয়োজন করে। সভায় সভাপতিত্ব করেন যাত্রার প্রবীণ স্মারক শিল্পী মোস্তফা জামান। সংগঠনের সভাপতি রেজাউল করিমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন উপদেষ্টা শেখ আবদুল লতিফ, শংকর মণ্ডল, সিরাজুল ইসলাম, শিল্পী শংকর, ধীরেন্দ্রনাথ, এম এ মান্নান, নারায়ণ চন্দ্র, ম্যানেজার প্রশান্ত মণ্ডল, সমাজসেবক আবদুল কাদের মোল্লা, স্থানীয় ইউপি সদস্য শফিকুল ইসলাম, মহিলা সম্পাদিকা ভারতী বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক রজত মণ্ডল।

বিজ্ঞাপন

মুজিব বর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে যাত্রা দল ও যাত্রাশিল্পের লোকদের সক্রিয় অংশ নিশ্চিত করার জোর দাবি জানিয়ে বক্তব্য দেন যাত্রাশিল্প উন্নয়ন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি যাত্রা গবেষক পালাকার এম এ মজিদ। উপজেলা কমিটি অন্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানমালার মধ্যে দেশীয় লেখকের একটি যাত্রাপালা মঞ্চায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সমসাময়িক প্রেক্ষাপটে লেখা পালাটির নাম ‘ঢাকা জ্বলছে’।

মন্তব্য করুন