default-image

‘বিশ্ব ক্যানসার দিবস-২০২১’ উপলক্ষে চট্টগ্রামের নারী তৈরি পোশাকশ্রমিকদের বিনা মূল্যে ‘জরায়ু ক্যানসার’ পরীক্ষা করেছে বেসরকারি পেশাজীবী ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান হেলদি হার্ট হ্যাপি লাইফ অরগানাইনেজশন (হেলো)। বৃহস্পতিবার নগরীর রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলের (ইপিজেড) গার্মেন্টস সেভেন সেকশন লিমিটেডে এই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনটির দেওয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, হেলোর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও প্রতিষ্ঠাতা ডা. মহসীন আহমদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ সাহেনা আক্তার। তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন শেখ ফজলে রাব্বী এবং চট্টগ্রাম বিএমএর সাধারণ সম্পাদক ডা. মো. ফয়সাল ইকবাল চৌধুরী।

‘জরায়ুমুখের ক্যানসার’ প্রতিরোধে সচেতনতা বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের সহকারী অধ্যাপক ফাহমিদা শিরিন। বক্তব্য দেন সেকশন সেভেন লিমিটেডের পরিচালক বিপ্লব বড়ুয়া, চিকিৎসক এরশাদ উদ্দিন প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানের সভাপতি মহসীন আহমদ শুভেচ্ছা বক্তব্যে বলেন, হেলো এত দিন দেশের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মাঝে হৃদ্‌রোগ বিষয়ে সচেতনতা ও চিকিৎসাসেবা দিয়ে আসছে। আজকের অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হেলো ক্যানসার রোগে সচেতনতা ও চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম শুরু করল এবং ভবিষ্যতে অন্যান্য বিষয়েও কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এ ব্যাপারে উপস্থিত সবাইকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাহেনা আক্তার বলেন, আন্তর্জাতিক ক্যানসার গবেষণা এজেন্সির তথ্যমতে, বাংলাদেশে বছরে সাড়ে ছয় হাজারের বেশি নারী জরায়ুমুখের ক্যানসারে মারা যাচ্ছেন। প্রতিবছর নতুন করে ১২ হাজারের বেশি নারীর শরীরে এই ক্যানসার শনাক্ত হচ্ছে। অথচ এ ধরনের ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার আগেই খুব সহজে শনাক্ত করা যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আগেই প্রতিকার করা যায়। তা ছাড়া দেশের সব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও জেলা সদর হাসপাতালে বিনা মূল্যে এটি নির্ণয়ের প্রাথমিক পরীক্ষা করা যায়। শুধু সচেতনতা ও প্রচার-প্রচারণার অভাবে এটি হয়ে ওঠে না। তিনি আরও বলেন, ‘হেলো যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে, এমন কর্মসূচি সমাজের অন্যান্য সেবাদানকারী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান গ্রহণ করলে জরায়ু ক্যানসার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে আমার দৃঢ় বিশ্বাস।’

নাগরিক সংবাদ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন