বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানের স্মৃতিচারণা করবেন ভারতের প্রখ্যাত শিক্ষাবিদ, সাহিত্যিক ও গবেষক পবিত্র সরকার, কথাসাহিত্যিক ও বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সভাপতি সেলিনা হোসেন, ভারতের কথাসাহিত্যিক রামকুমার মুখোপাধ্যায়, ইতিহাসবিদ এমরান জাহান, এ কে এম শাহনাওয়াজ, শিক্ষাবিদ আবেদা সুলতানা, বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও কবি আবু সাঈদ এবং উদার আকাশ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ফারুক আহমেদ।

default-image

অনুষ্ঠান আয়োজন সম্পর্কে বাংলাদেশ ইতিহাস অলিম্পিয়াড জাতীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ বলেন, ‘শিক্ষকেরা আমাদের স্বপ্ন দেখিয়েছেন, জীবনচলার পথ হাত ধরে দেখিয়ে দিয়েছেন, সব সময় আমাদের অনুপ্রাণিত করেছেন। এই শিক্ষক দিবসে আমরা আন্তরিকভাবে শ্রদ্ধা নিবেদন করব। সেই সঙ্গে আমাদের স্মৃতিতে তাঁর কথাগুলো এই আয়োজনে মাধ্যমে তরুণদের কাছে তুলে ধরাই আমাদের সমাজকে আলোকিত করবে।’

উদার আকাশ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ফারুক আহমেদ বলেন, ‘শিক্ষকেরা প্রকৃত অর্থে মানুষ হওয়ার জন্য পথ দেখিয়েছেন। সুস্থ সমাজ গড়ার কারিগর হচ্ছেন আমাদের শিক্ষক ও শিক্ষিকারা, তাঁদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করছি।’
অনুষ্ঠানে সহযোগিতায় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সংগঠক মুক্ত আসর ও ভারতের প্রকাশনা সংস্থা উদার আকাশ।

নাগরিক সংবাদ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন