বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চা-বাগানের মধ্যে কাটাইলিয়া। কেউ কেউ নামও দিয়ে দিয়েছেন ‘কাটাইলিয়া লেক’। এ কাটাইলিয়া লেকে ফুটেছে চোখে লাগার মতো শাপলা ফুল। দূর থেকে দেখামাত্র মুখ থেকে বেরিয়ে আসবে ‘বাহ্‌, কি সুন্দর’। তখন মনের অজান্তেই গুনগুনিয়ে উঠবেন, ‘তুমি সুতোয় বেঁধেছ শাপলার ফুল, নাকি তোমার মন...’।

সেখানে চারদিকে পাখির কোলাহল শোনা যায়, পাড়ে ঘুরতে থাকলে হঠাৎ দেখা যেতে পারে বানর। চা-বাগানের গাছের এ ডাল থেকে অন্য ডালে লাফাতে দেখলে বেশ ভালোই লাগে। সন্ধ্যা নামলে শিয়ালের পাল দেখা যায়৷ তা ছাড়া রয়েছে দেশীয় নানা প্রজাতির পাখির আনাগোনা। এটি আশপাশের পরিবেশ আর গ্রামগুলোকে মনোমুগ্ধকর করে তুলেছে।

যদি এই শাপলার গালিচা দেখতে চান, তাহলে আপনাকে চলে আসতে হবে মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের হিংগাজিয়া চা-বাগানে। বাগানের বাংলোর পাশ ঘেঁষে রয়েছে এই কাটাইলিয়া লেক নামের স্থানটি। শাপলার বিলে সময় পেলেই ছুটে আসেন স্থানীয় প্রকৃতিপ্রেমীরা।

default-image

শাপলা এক প্রকার জলজ ফুল। শাপলা বাংলাদেশের জাতীয় ফুল। শাপলার বৈজ্ঞানিক নাম (Nymphaea nouchali)। এই ফুল শ্রীলঙ্কারও জাতীয় ফুল। শ্রীলঙ্কায় এই ফুল (Nil Manel) নীল মাহানেল নামে পরিচিত।

একসময় দেশের ডোবা-নালা, খাল-বিল, জলাশয়ে শাপলা ফুল দেখা যেত। কালের বিবর্তনে আস্তে আস্তে সব হারিয়ে যাচ্ছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় এসব জায়গায় গড়ে উঠেছে বড় বড় দালান। শাপলা ফুল রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসা প্রয়োজন বলে মনে করে প্রকৃতিপ্রেমী সচেতনমহল।

নাগরিক সংবাদ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন