বিজ্ঞাপন

এবার একটু পথশিশুদের কথা বলি। সেদিন অনলাইন নিউজে দেখলাম, মিম আর শিউলি নামের দুই কিশোরী পথের ডিভাইডারে শুয়ে আছে। মা কাজ করে ফিরবেন বলে আর ফেরেনি? লকডাউন হওয়ায় ওরা ঘরেও ফিরতে পারছে না। তাহলে এই দুটো বাচ্চা মেয়ের নিরাপত্তা কোথায়? মিম বলেছিল, ‘আমরা ভিক্ষা করিনা ভাইয়া, আমরা ফুল বিক্রি করি, কিন্তু খিদার জ্বালায় আজ ছোট বোনডা হাত পাতছে।’ আহারে এমন হাজারো পথশিশু আজ বেকার। তাদের কেউ ফুল বিক্রি করে, কেউ বেলুন বেঁচে, কেউবা পানি বিক্রি করে ট্রাফিক জ্যামে ঘুরে ঘুরে। এত এত অসহায় মুখে আজ তালা।
আমরা বাঁচতে চাই। বাঁচতে চাই যেমন করোনা নামক দানবের হাত থেকে, তেমনি বাঁচতে চাই ক্ষুধার মতো কঠিন বাস্তবতার হাত থেকেও। আমরা যে যতটুকু পারি, তা–ই দিয়ে সাহায্য করি এসব নিম্ন আয়ের মানুষকে। মানুষ আমরা সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব। তাই একমাত্র ওপরওয়ালাই পারেন আমাদের এই কঠিন বিপদ থেকে উদ্ধার করতে। খারাপ সময় ভালো কিছুর বার্তা নিয়ে আসে। আসুন আমরা আল্লাহর কাছে দুহাত তুলে প্রার্থনা করি। ফিরে যাই ফেলে আসা সেই অনিন্দ্য সবুজ-সুন্দর সময়ে।

*লেখক: রোজিনা রাখী, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ, স্টেট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

পাঠক কথা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন